বিদেশ থেকে আনা যাবে না আগের মতো স্মার্টফোন!

Written by

ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য এয়ার মেইল বা শিপিংয়ে বিদেশ হতে মোবাইল হ্যান্ডসেট আনার সীমা নির্ধারণ করে দিয়েছে বিটিআরসি।

এ বিষয়ে ইতোমধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে তা কার্যকরে পদক্ষেপ নিয়েছে নিয়ন্ত্রণ সংস্থাটি।

বিটিআরসির স্পেকট্রাম বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল মোঃ শহীদুল আলম টেকশহরডটকমকে এই সিদ্ধান্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, বিটিআরসির অনাপত্তিপত্র ছাড়া ব্যক্তিগত পর্যায়ে ব্যবহারে এয়ার মেইল বা শিপিংয়ে সর্বোচ্চ দুটি হ্যান্ডসেট আনা যাবে।

এয়ার মেইল বা শিপিংয়ে মাধ্যমে আসা সকল হ্যান্ডসেট ছাড়ের ক্ষেত্রে বিধি অনুযায়ী শুল্ক প্রদান এবং নিবন্ধনের ক্ষেত্রে প্রেরকের পাসপোর্টের ফটোকপি(প্রযোজ্য ক্ষেত্রে), প্রাপকের জাতীয় পরিচয়পত্রের অনুলিপি এবং শুল্ক প্রদানের রশিদ জমা দিতে হবে।

আর যদি দুটির বেশি হ্যান্ডসেট আনা হয় সেক্ষেত্রে বিধি অনুযায়ী Dealer Possession and Radio Communication Equipment Vendor Enlistment Certificate বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

এ বিষয়ে কাস্টমসকেও চিঠি দিয়ে জানিয়েছে নিয়ন্ত্রণ সংস্থাটি।

বিটিআরসি বলছে, বর্তমানে দেশে ১৭ কোটি ৪১ লাখ মোবাইল ফোন গ্রাহক রয়েছে। বিদেশ হতে প্রতি বছর দেড় কোটি মোবাইল ফোন আমদানির পাশাপাশি দেশে স্থানীয়ভাবে ২ কোটি মোবাইল হ্যান্ডসেট সংযোজিত হচ্ছে। বৈধভাবে আমদানির পাশাপাশি এখনও কর ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে হ্যান্ডসেট দেশে আনা হচ্ছে।

বর্তমানে ব্যক্তিগত পর্যায়ে ৮টি হ্যান্ডসেট বিদেশ হতে আসার সময় সঙ্গে আনা যাবে। এরমধ্যে ২টি হ্যান্ডসেট বিনাশুল্কে এবং ৬টি হ্যান্ডসেট শুল্ক দিয়ে আনা যাবে।

কিন্তু এয়ার মেইল বা শিপিংয়ে মোবাইল হ্যান্ডসেট আনার ক্ষেত্রে কোনো সীমা ছিলো না এতদিন। বিটিআরসি এবার সেখানে সীমা নির্ধারণ করে দিলো।

Article Categories:
অন্যান্য

Leave a Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares