গুগল ক্রোম ব্রাউজারের প্রয়োজনীয় ৫ এক্সটেনশন

Written by

গুগল ক্রোমের হাজার হাজার এক্সটেনশনের ভিড়ে কোনটা কাজে লাগবে তা বোঝা খুব কঠিন। তাই  প্রয়োজনীয় ৫টি ক্রোম এক্সটেনশনের খোঁজ দেওয়া হলো।

অফিস এডিটিং ফর ডকস, শিটস অ্যান্ড স্লাইডস

কম্পিউটারে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড, এক্সেল ও পাওয়ার পয়েন্ট ইন্সটল করা না থাকলেও সমস্যা নেই। অফিস এডিটিং ফর ডকস, শিটস অ্যান্ড স্লাইডস এক্সটেনশনটি ইন্সটল করলে অফিস ফাইল ড্র্যাগ করেই ক্রোমে নেওয়া যাবে। এরপর জিমেইলে বা গুগল ড্রাইভে ফাইলটি ওপেন হবে। ডক, শিট বা স্লাইড যে ফরম্যাটেই থাকুক না কেনো সেগুলো এডিট করা যাবে।

ট্যাব র‍্যাংলার

বহুক্ষণ ধরে নিষ্ক্রিয় থাকা ট্যাব নির্দিষ্ট বিরতিতে বন্ধ করবে এক্সটেনশনটি। ট্যাব সেইভ করে বন্ধ করার ফলে সহজেই সেগুলো রিওপেন করা যাবে। তবে পিন করে রাখলে ট্যাব বন্ধ করবে না।

সেশন বাডি

এক্সটেনশনটির মাধ্যমে ওপেন থাকা সব ট্যাব এক জায়গায় দেখা যাবে। সবচেয়ে বড় সুবিধা হল ব্রাউজার বা সিস্টেম ক্র্যাশ করলেও ট্যাবগুলো রিকভার করা যাবে। প্রতিটি লিঙ্কের জন্য টপিক দেওয়া যাবে। পরে টপিক দিয়ে সার্চ করলে ট্যাব ফিরে পাওয়া যাবে।

লাস্ট পাস

পাসওয়ার্ড ম্যানেজার হিসেবে কাজ করে এটি। ইন্সটল করে সব অ্যাকাউন্টের লগইন ও পাসওয়ার্ড সেইভ করে রাখা যায় এতে। নতুন পাসওয়ার্ড অ্যাড, এডিট, ডিলিট সবই করা যাবে এক্সটেনশনটিতে। চাইলে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর, ক্রেডিটকার্ড নম্বর, পাসপোর্ট, ডাইভিং লাইসেন্সও সেইভ রাখা যায়।

ভিজুয়ালপিং

কোনো ওয়েবপেইজে পরিবর্তন এসেছে কিনা সে সম্পর্কে ব্যবহারকারীকে তথ্য দেবে এক্সটেনশনটি। যে ওয়েব পেইজের পরিবর্তন সম্পর্কে জানতে চান তার লিঙ্ক এক্সটেনশনটিতে দিতে হবে। কোনো পরিবর্তন আসলে ইমেইলে তা ব্যবহারকারীকে জানানো হয়। কোনো পণ্য প্রি-অর্ডার বা হোটেল বুকিং দেওয়ার ক্ষেত্রে এটি বেশ কাজে লাগে।

গুগল ক্রোম ওয়েব স্টোর থেকে সব এক্সটেনশনই ফ্রিতে ডাউনলোড করা যায়। চাইলে  এক্সটেনশনগুলো যেকোনো সময় ডিজেবল বা ডিলিট করা যাবে।

Article Categories:
গুগল ক্রোম

Leave a Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares