Walton Primo S7 স্মার্টফোনটির ফুল হ্যান্ডস অন রিভিউ

Written by

ওয়ালটন এর প্রথম নচ ডিসপ্লে এবং ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সংবলিত স্মার্টফোন ‘প্রিমো এস৭’।  আগস্টের প্রথম সপ্তাহ থেকেই স্মার্টফোনটি সারা দেশব্যাপি পাওয়া যাবে।  কোম্পানিটির প্রথম এই নচ ডিসপ্লে যুক্ত স্মার্টফোনে সামনে ফ্রন্ট প্যানেলে দেখা মিলবে একটি ‘ওয়াটার ড্রপ’ নচ।  তবে ‘প্রিমো এস৭’ স্মার্টফোনটির মূল আকর্ষণ এর রিয়ার প্যানেলে থাকা ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ।  সেলফির জন্য সামনে থাকছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।  আজকের এই রিভিউ আর্টিকেলে দেশীয় ইলেক্ট্রনিকস ব্র্যান্ড; ওয়ালটন এর দারুন এই মিড বাজেট স্মার্টফোনটি সম্পর্কে আপনাদের বিস্তারিত জানানোর চেষ্টা করব।

‘প্রিমো এস৭’ স্মার্টফোনটির মূল আকর্ষণ এর রিয়ার প্যানেলে থাকা ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ।  সেলফির জন্য সামনে থাকছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা

প্রথমত একনজরে  চলুন জেনে নেই স্মার্টফোনটির এক্সটারনাল এবং ইন্টারনাল কি কি ফিচার আছে।  যা আপনাকে আকর্ষণ করতে পারে,

  • অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই অপারেটিং সিস্টেম
  • ৬ দশমিক ২৬ ইঞ্চির ডিসপ্লে, ‘ওয়াটার ড্রপ’ নচ
  • ৩ জিবি ডিডিআর৪ র‌্যাম
  • ১২, ১৩ ও ২ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা (রিয়ার)
  • ১৬ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা
  • ১২ ন্যানোমিটার ২.০ গিগাহার্জ অক্টাকোর প্রসেসর

প্রিমো এস৭ বক্স এর ভেতর যা যা পাবেন,

  • প্রিমো এস৭ ডিভাইসটি
  • পাওয়ার আড্যাপ্টার
  • ইউএসবি কেবল
  • একটি হেডফোন
  • সিম ইজেক্টর
  • স্ক্রিন প্রটেকটিভ পেপার
  • একটি সুন্দর ব্যাক-কভার
  • ওয়ারেন্টি কার্ড ও আনুসাঙ্গিক কাগজপত্র

ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ

সূচনাতেই বলেছি, এই প্রিমো এস৭ ডিভাইসটির মূল আকর্ষণ এর আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ট্রিপল কামেরা সেটআপ।  ফোনটির পেছনে থাকছে ১৩,১২ এবং ২ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ট্রিপল ক্যামেরা মডিউল।  প্রাইমারি বিএসআই সেন্সর হিসেবে থাকছে ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সর, পাশাপাশি থাকছে ১৩ মেগাপিক্সেল সুপার ওয়াইড অ্যাঙ্গেল সেন্সর এবং পরিশেষে থাকছে একটি ২ মেগাপিক্সেল ডেপথ সেন্সিং তথা তথা ছবির সাবজেক্ট এর সাথে অবজেক্ট এর দুরুত্ত মাপার সেন্সর।

এই তিনটি ক্যামেরা সেন্সর মিলে ডিভাইসটির ট্রিপল ক্যামেরা মডিউল।  আর ওয়ালটন এর দাবি এই ট্রিপল ক্যামেরা মডিউল আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স দ্বারা পরিচালিত, যার ফলে আমরা আশা করতেই পারি এই দারুন ‘ট্রিপল ক্যামেরা মডিউল’ থেকে আমরা খুবই স্মুথ এবং বাস্তব কিছু দারুন দারুন ছবি তুলতে পারব।

ক্যামেরা ইউআই

ডিজাইন

অসাধারন লুকিং এই ‘প্রিমো এস৭’ ডিভাইসটি বাজারে পাওয়া যাবে দুইটি আকর্ষণীয় কালারে, আর এগুলো হলঃ সি গ্রিন(সমুদ্র সবুজ) এবং ব্লু  (নীল)।  ডিভাইসটইর গ্লসি মিরর ফ্রেম এবং গ্লাস এর মত ব্যাক (রিয়ার) প্যানেল এর প্রিমিয়ামনেসকে বাড়িয়ে দিয়েছে শতগুণে! পাশাপাশি এর রিয়ার প্যানেলের গ্র্যাডিয়েন্ট ফিনিস তো আছেই।  ডিভাইসটির উচ্চতা ১৫৯ মিলিমিটার এবং প্রসস্থ ৭৬.৭ মিলিমিটার।  ব্যাটারি সহ এর ওজন প্রায় ১৭৫ গ্রাম, যা তুলনামুলক হালকাই বলতে গেলে।

ডিসপ্লে

এই প্রিমো এস৭ ডিভাইসটিতে থাকছে ৬ দশমিক ২৬ ইঞ্চির নচ ডিসপ্লে।  এটি একদম ১৯ঃ৯ এস্পেক্ট রেসিও আল্ট্রা ফুল ভিউ ডিসপ্লে।  যার বডি-টু-স্ক্রিন রেসিও মাত্র ৮৮%।  আর এস৭ এর এইচডি+ আইপিএস ডিসপ্লে ব্রাইটনেসএর দিক দিয়ে দারুন, কেননা এর ডিসপ্লে ব্রাইটনেস ৪৫০ নিট।

হার্ডওয়্যার

ডিভাইসটির মেইন চিপসেট হিসেবে থাকছে মিডিয়াটেকের mt6762 সিপিইউ।  যা একটি ১২ ন্যানোমিটার প্রযুক্তির ২ গিগাহার্জ অক্টা-কোর প্রসেসর।  আর এটিও ওয়ালটন এর দাবিতে একটু  আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স  দ্বারা পরিচালিত বলে ইউজার এক্সপেরিএন্স হবে আরও বেশি স্মুথ।  আর ১২ ন্যানোমিটার প্রযুক্তি হয়ার কারনে ব্যাটারি এর দিক দিয়েও এটি অনেক সাশ্রয়ী হবে আশা করা যাচ্ছে।  এতে থাকবে, পাওয়ার ভিআর জিই৮৩২০ গ্রাফিক্স।

বেঞ্চমার্ক স্কোর

সবকিছু মিলিয়ে এনটুটু বেঞ্চমার্কিং অ্যাপে  এর স্কোর এসেছে ৭৭১১৫।  আর গিক বেঞ্চ অ্যাপে সিঙ্গেল কোর স্কোর ৭৬৪ এবং মাল্টি কোর স্কোর ৩৬০২।

স্টোরেজ

র‍্যাম  এবং স্টোরেজ এর দিক দিয়ে এই ডিভাইসটি অনেক মিনিমাল।  কেননা এতে পাওয়া যাবে ৩ জিবি র‍্যাম।  আর রম তথা ইন্টারনাল স্টোরেজ থাকছে ৩২ জিবি।  তবে র‍্যাম ডিডিআর৪ হয়ার কারনে পারফর্মেন্স একটু বেশি আশা করা যায়।  আর এতে হালের জনপ্রিয় পাবজি, ফ্রিফায়ার খুব ভালভাবেই খেলা যাবে।  স্মার্টফোনটিতে ২৫৬ জিবি পর্যন্ত এক্সটারনাল মেমোরি ব্যবহার করার সুযোগ থাকছে, যদিও এখন ২৫৬ জিবি আমাদের দেশে ওইভাবে এভেইলেবল নেই,কিন্তু ১২৮ জিবি মেমোরি কার্ড সব জায়গায় পাওয়া যায়। 

সেলফি ক্যামেরা

প্রিমো এস৭ স্মার্টফোনটির ফ্রন্ট প্যানেলে ওয়াটার ড্রপ নচ এর ভেতর আছে একটি ১৬ মেগাপিক্সেল এর সেলফি ক্যামেরা সেন্সর।  আর এই ক্যামেরাটি আপনার সেলফ পোর্টফলিও তোলাকে অন্য পর্যায়ে নিয়ে যেতে পারে।  তাছাড়া এতে থাকবে ফেস ডিটেকশন আটো-ফোকাস এবং আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স তথা এআই বিউটি মোড।  সেলফি ক্যামেরাটির অ্যাপারচার এফ২.০।

ফিঙ্গারপ্রিন্ট

স্মার্টফোনটির রিয়ার প্যানেলে ক্যামেরা মডিউলএর ঠিক কাছেই থাকছে একটি ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।  যেখানে সর্বোচ্চ ৫ টি ফিঙ্গারপ্রিন্ট সাপোর্ট করবে।  আর এই ফিঙ্গারপ্রিন্টের রেসপন্স টাইম ০.১ সেকেন্ড; যা সত্যি খুব ফাস্ট।

ফেস আনলক

ডিভাইসটির ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা পাশাপাশি  এআই সাপোর্ট থাকার কারনে, এই ডিভাইসটি সিকিউরিটির জন্য আরেকটি বিশেষ ফিচার দিচ্ছে, যা হচ্ছে ফেস আনলক।

ব্যাটারি

প্রিমো এস৭ স্মার্টফোনটিতে থাকছে একটি ৩৯০০ এমএএইচ ক্ষমতা সম্পন্ন লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি।  ডিভাইসটি ৫ভোল্ট বাই ২ অ্যাম্পিয়ার ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে।  যা দিয়ে সম্পূর্ণ ডিভাইসটি চার্জ হতে প্রায় ২ ঘন্টারও কম সময় লাগবে।

অপারেটিং সিস্টেম

সকল আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স কার্যবিধি সহ সম্পূর্ণ ডিভাইসকে পরিচালনা করবে অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই অপারেটিং সিস্টেম।


ডিজিটাল ওয়েলবিয়িং

আপনার দৈনন্দিন কার্যবিধি কে ট্র্যাক করার জন্য এই স্মার্টফোনের ভেতর থাকছে একটি বিশেষ ফিচার। আর যার নাম হচ্ছে ডিজিটাল ওয়েলবিয়িং।  আর এই ডিজিটাল ওয়েলবিয়িং ডেভেলপ করেছে গুগল।  আর প্রিমো এস৭ ডিভাইসে এটি একটি স্পেশাল ফিচার হিসেবে থাকছে।


ওয়ারেন্টি

ওয়ালটন এর অন্যসব ফোনের মতই এতে পাওয়া যাবে রিপ্লেসমেন্ট এবং ওয়ারেন্টি সুবিধা।

পরিশেষ

আগের এস৬ ডুয়ালের চাইতে নতুন এস৭  স্মার্টফোনটি বেশ আপগ্রেড।  কেননা এতে অ্যান্ড্রয়েড এর সর্বশেষ ভার্সন থাকছে।  ক্যামেরা, হার্ডওয়্যারে এর দিক দিয়েও এটি আগের এস৬ ডুয়ালের চাইতে অনেক শতাংশে আপগ্রেড।  তাছাড়াও এটি এস সিরিজের অন্য সব ফোনের থেকে সাইজেও বড়।

Article Categories:
রিভিউ

Leave a Reply

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *